বাণী

PrimeMenister-sekhg-hasina
শেখ হাসিনা
 মাননীয় প্রধানমন্ত্রী

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের উদ্যোগে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ‘মুজিববর্ষ’ এ জাতির পিতার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য ‘আমার মুজিব’ নামের একটি গ্রন্থ প্রকাশিত হচ্ছে জেনে আমি আনন্দিত। এ উপলক্ষে সংশ্লিষ্ট সকলকে আমি আন্তরিক শুভেচ্ছা জানাচ্ছি।

জাতির পিতার জীবন ও কর্ম আপামর জনসাধারণের কাছে তুলে ধরতে মার্চ ২০২০ থেকে ডিসেম্বর ২০২১ সময়কে ‘মুজিববর্ষ’ ঘোষণা করা হয়েছে। বাংলাদেশের পাশাপাশি ইউনেস্কোর উদ্যোগে বিশ্বব্যাপী পালিত হচ্ছে ‘মুজিবর্ষ’। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ১৯২০ সালের ১৭ মার্চ তৎকালীন ফরিদপুর জেলার গোপালগঞ্জ মহকুমার টুঙ্গিপাড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। বাল্যকাল থেকেই তিনি ছিলেন অমিত সাহসী এবং মানবদরদী। ছিলেন রাজনীতি ও অধিকার সচেতন। প্রখর দূরদৃষ্টিসম্পন্ন এই বিশ্বনেতার সুদীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনের মূল লক্ষ্য ছিল বাঙালি জাতিকে পরাধীনতার শৃঙ্খল থেকে মুক্ত করা; ক্ষুধা, 

ডা. দীপু মনি এম.পি.
 
মাননীয় মন্ত্রী
শিক্ষা মন্ত্রণালয়

বঙ্গবন্ধু তাঁর অধিকার ভরা দরাজ গলায় হৃদয়ের গভীর থেকে স্বত:স্ফূর্তভাবে উৎসারিত “আমার দেশ”, “আমার বাঙালি”, “আমার মানুষ” শব্দবন্ধগুলো ব্যবহার করে বাংলার মাটি ও মানুষকে যে ভাবে আপন করে নিয়েছিলেন, ঠিক তেমন করে আর কেউ নিজের দেশ ও মানুষকে আপন করে নিতে পেরেছে কিনা আমি জানি না। বলা যায়, তাঁর ভালবাসার প্লাবনে পঞ্চাশ, ষাট ও সত্তর দশকের বাঙালিরা প্লাবিত হয়েছে বার বার। অবশ্য প্রতিদানে বাঙালিও কম দেয়নি তাঁকে। তাঁর যাদুকরী সেই অঙ্গুলি হেলনে মুহুর্মুহ গর্জে 

মহিবুল হাসান চৌধুরী এম.পি.
 
মাননীয় উপমন্ত্রী
শিক্ষা মন্ত্রণালয়

মহাকালের মহানায়ক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি, সর্বকালের সর্ব শ্রেষ্ঠ বাঙালি, বাংলাদেশের স্থপতি, স্বাধীনতার প্রতীক, বাঙালির মুক্তির পথিকৃৎ, বাংলাদেশের স্বপ্নদ্রষ্টা, সাহস ও শৌর্যের প্রতীক, এদেশের সাধারণ মানুষের আশা–আকাঙ্খা পূরণের অবিসংবাদিত নেতা, মুক্তিযুদ্ধের প্রেরণা, এমন বহু নামে তাঁকে অভিহিত করা যায়। বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক দূরদর্শিতা, সাহস, বাগ্মিতা এবং বলিষ্ঠ নেতৃত্ব এদেশের সাধারণ মানুষকে স্বাধীনতা যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়তে অনুপ্রাণিত করে। মহাকালের মহান

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর উদ্দেশ্যে সারাদেশের শিক্ষার্থীদের লেখা ও ছবি

ক বিভাগ
ইউশা ফাহরিন
শ্রেণিঃ ৬ষ্ঠ শিফটঃ প্রভাতি শাখাঃ গোলাপ
বরগুনা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় বরগুনা।
রুখসাদ জামান রুপন্তি

শ্রেণিঃ ৮ম রোলঃ ০১ এভারগ্রীন পাবলিক মডেল স্কুল বরগুনা

অরিত্র বিশ্বাস অথৈ

শ্রেণিঃ ৮ম রোলঃ ০৭ ধামুরা মাধ্যমিক বিদ্যালয় উজিরপুর, বরিশাল।

ইয়াসিন হোসেন পরাগ

শ্রেণিঃ ৮ম রোলঃ ১৯ সরকারি পাতারহাট মুসলিম উচ্চ বিদ্যালয় বরিশাল।

খ বিভাগ
আজিবা জামান অধরা

শ্রেণিঃ ১০ম রোলঃ ০২ বিভাগঃ বিজ্ঞান নবাবগঞ্জ পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় গৌরনদী, বরিশাল।

ফাইরুজ হুমাইরা নূর

শ্রেণিঃ ৯ম রোলঃ ০৩ শাখাঃ খ শিফটঃ দিবা বগুড়া সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় বগুড়া

সৌম্য চক্রবর্তী

শ্রেণিঃ ৯ম রোলঃ ০২ শাখাঃ ক শিফটঃ প্রভাতি চাঁদপুর হাসান আলী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় চাঁদপুর।

তুন্নি খাতুন

শ্রেণিঃ ১০ম শাখাঃ ক রোলঃ ০১ তিতুদহ মাধ্যমিক বিদ্যালয় চুয়াডাঙ্গা

গ বিভাগ
শামীমা খাতুন

শ্রেণিঃ একাদশ রোল নংঃ ৫২৪ রহমপুর পিএম আইডিয়াল কলেজ, গোমস্তাপুর।

ক্যাডেট সাকিব

রাজশাহী ক্যাডেট কলেজ, রাজশাহী।

মারুফা জান্নাত

শ্রেণিঃ আলিম ১ম বর্ষ রোল নংঃ ০৩ হযরত ফাতিমা (রা.) বালিকা আলিম মাদ্রাসা, চকরিয়া, কক্সবাজার।

 

মোছাঃ রাবেয়া খাতুন

শ্রেণিঃ একাদশ রোল নংঃ ০৯ তাড়াশ মহিলা ডিগ্রী কলেজ, তাড়াশ, সিরাজগঞ্জ।

ঘ বিভাগ
শ্রাবণী আক্তার

শ্রেণিঃ অনার্স ১ম বর্ষ রোলঃ ৬২০ বিভাগঃ রাষ্ট্রবিজ্ঞান সরাইল সরকারি কলেজ সরাইল, ব্রাহ্মণবাড়িয়া।

হালিমাতুস সাদিয়া সুখী

শ্রেণিঃ অনার্স ১ম বর্ষ রোলঃ ৩০০৬২ সরকারি পি.সি. কলেজ বাগেরহাট।

নাঈমা জান্নাত

শ্রেণিঃ অনার্স ৪র্থ বর্ষ রোলঃ ১০০২৪ সরকারি পি.সি. কলেজ, বাগেরহাট।

ফাতেমা জাহান(ছানিয়া)

শ্রেণিঃ অনার্স ২য় বর্ষ রোলঃ ১৯১৮১০৩ বিভাগঃ রাষ্ট্রবিজ্ঞান সরকারি মুজিবুর রহমান মহিলা কলেজ সদর, বগুড়া।